সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “৭১সংবাদ২৪.কম” এ প্রতিনিধি আহ্বান করা হয়েছে। আগ্রহীগণ জিবনবৃত্তান্ত পাঠাতে 71sangbad24.com@gmail.com -এ মেইল করুন
সংবাদ শিরোনামঃ
ডিমলায় অসহায় ১০০ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও অর্থ বিতরণ মহাসড়কে চাঁদাবাজি দায়ে আটক ১১ “নো হেলমেট, নো ফুয়েল” বাস্তবায়নে মাঠে নীলফামারী জেলা পুলিশ শাহ গ্রামে জমিজমার বিরোধকে কেন্দ্র করে মারপিট ফুলবাড়ীতে যাত্রা শুরু করলো ক্লিন মসজিদ টিম ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে ঝুঁকিপূর্ণ বটগাছ, দূর্ঘটনার আশঙ্কা নড়াইলে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার-১ ধুনটে গোসাইবাড়ী বাজারে অবৈধ ঘর উচ্ছেদ অভিযান ডিবি পুলিশের সফল অভিযানে সাজা প্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার বকশীগঞ্জে পুকুরে ডুবে কিশোর নিহত পাবনায় অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার নীলফামারীতে বর্গা প্রদানকৃত জমি দখলের অভিযোগ, গ্রেপ্তার-২ বহুল আলোচিত জয়পুরহাটের বুলু মিয়া হত্যা মামলায়- ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ফুলবাড়ী খাদ্য গুদামে ইরি বোরো ধান ও চাউল সংগ্রহ শুরু প্রার্থীর অভিযোগে রায়পুর উপজেলা নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা পরিবর্তন জলঢাকায় অগ্নিকান্ড- ঘরসহ নগদ টাকা পুড়ে ছাই জিম্মি জাহাজে দস্যুরা খাবারে তৃপ্তি না পেয়ে দুম্বা নিয়ে আসতো- লক্ষ্মীপুরে ক্যাডেট আইয়ুব নড়াইলে প্রতারণা মামলার আসামি গ্রেফতার ঐতিহ্যের স্মারক রাজশাহী জেলা প্রশাসনের ২৫২ বছরে পদার্পণ

পাঁচ বছরেও হয়নি সংস্কার সেতু দুর্ভোগে এলাকাবাসী

নাসির উদ্দিন শাহ্- নীলফামারী জেলা প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর জলঢাকায় পাঁচ বছর আগে বন্যায় হেলেপড়া সেতুটি আজও সংস্কার না করার ফলে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীর।

সরেজমিনে দেখা যায়- উপজেলার ডাউয়াবারী ইউনিয়নের ১নং ডাউয়াবাড়ি চরভরট গ্রামের বাসিন্দাদের ইউনিয়ন অফিস, বাজার ও উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র সড়ক এটি। আর চলাচল অনুপযোগী সেতুটি রয়েছে এই সড়কে। ২০১৭ইং সালের ১০ই আগষ্ট বন্যার পানির স্রোতে সেতুটির একদিকে হেলে পড়লে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। তারপরেও মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেতুর ওপর দিয়ে চলাচল করছে। সংস্কারের আশ্বাস মিললেও এখন পর্যন্ত সেতুটি সংস্কার হয়নি।

স্থানীয়রা জানান- আমাদের নেকবক্ত ও উপজেলা বাজারের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম এই সড়ক। আর এই সড়কের ওপর নির্মিত সেতুটি ত্রাণের টাকায় নির্মিত হয় ২০১৭ইং সালে। সে সময় বন্যার পানিতে সেতুটি হেলে পড়লে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। এবং সড়ক ও সেতু চলাচল উপযোগী করতে এলাকাবাসী সাহায্য সহযোগিতায় বালু ফেলে ও বাঁশের সেতু নির্মাণ করা হয়। সেই বালুও গতবারের বন্যায় নষ্ট হয়ে সেতু চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। বর্তমান বাঁশের সেতুটিও ঝুঁকিপূর্ণ। তারা বর্ষা ও শুষ্ক মৌসুমে বিকল্প পথে দুই কিলোমিটার ঘুরে চলাচল করেন। এই এলাকায় প্রায় তিন হাজার লোকের বসবাস। তাই সেতুটি দ্রুত মেরামতের দাবি জানান।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম মুকুল জানান- সেতুটি হেলে পড়ার দিনই তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল হক প্রধান ও প্রকৌশলী হারুন অর রশীদকে জানানো হয়েছিল। সেই সময় তারা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো সহ দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন।কিন্তু চার বছর হয়ে গেলেও সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি।

জানতে চাইলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ময়নুল হক বলেন- গত ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে ত্রাণের ১২ লাখ টাকায় এ সেতু নির্মাণ কাজ শুরু হয়ে ২০১৭ইং সালের মে মাসে কাজ শেষ হয়। সেই সময় বন্যার পানিতে সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছিল।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

অনলাইন ভিত্তিক 71sangbad24.com গণমাধ্যমটি

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশনে নিবন্ধিত, (আই ডি নং-364)

বাংলাদেশ তথ্য মন্ত্রনালয়ে জাতীয় নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন।

আগ্রহীগণ সিভি পাঠাতে -মেইল করুনঃ info71sangbad24.com@gmail.com

©2019 copy right. All rights reserved 71sangbad24.com Desing & Developed By Hostitbd.Com