বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১২:১৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
অনলাইন ভিত্তিক গণমাধ্যম “৭১সংবাদ২৪.কম” এ প্রতিনিধি আহ্বান করা হয়েছে। আগ্রহীগণ জিবনবৃত্তান্ত পাঠাতে 71sangbad24.com@gmail.com -এ মেইল করুন
সংবাদ শিরোনামঃ
পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বে-সরকারি ভাবে ফল প্রকাশ মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বে-সরকারি ভাবে ফল প্রকাশ নড়াইল সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে ব্রিফিং প্যারেড অনুষ্ঠিত পীরগঞ্জের উপজেলা নির্বাচনের পরিবেশ পরিস্থিতি নড়াইলে হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার ফুলবাড়ীর আলাদীপুর ইউপিতে নিরাপদ সবজি উৎপাদন যুক্ত প্রদর্শনী মাঠ দিবস ডিমলায় অসহায় ১০০ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও অর্থ বিতরণ মহাসড়কে চাঁদাবাজি দায়ে আটক ১১ “নো হেলমেট, নো ফুয়েল” বাস্তবায়নে মাঠে নীলফামারী জেলা পুলিশ শাহ গ্রামে জমিজমার বিরোধকে কেন্দ্র করে মারপিট ফুলবাড়ীতে যাত্রা শুরু করলো ক্লিন মসজিদ টিম ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভিতরে ঝুঁকিপূর্ণ বটগাছ, দূর্ঘটনার আশঙ্কা নড়াইলে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার-১ ধুনটে গোসাইবাড়ী বাজারে অবৈধ ঘর উচ্ছেদ অভিযান ডিবি পুলিশের সফল অভিযানে সাজা প্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার বকশীগঞ্জে পুকুরে ডুবে কিশোর নিহত পাবনায় অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার নীলফামারীতে বর্গা প্রদানকৃত জমি দখলের অভিযোগ, গ্রেপ্তার-২

নীলফামারীতে ইজারার নামে ফসলি জমি কেটে বালু বিক্রি

নাসির উদ্দিন শাহ্- নীলফামারী জেলা প্রতিনিধিঃ
নীলফামারী সদর উপজেলার কচুকাটা ও কিশোরগঞ্জ উপজেলার বুক চিরে বয়ে গেছে চাড়াল কাটা নদী। সেই নদী খননকৃত বালু ইজারা নেওয়ার নামে ফসলি ও ব্যক্তি মালিকানা জমি কেটে বালু উত্তলনের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আনিছুর কন্সট্রাকশনের বিরুদ্ধে। স্থানীয়দের অভিযোগ, কচুকাটা মৌজাস্থ চাড়াল কাঠা নদীর তীরবর্তী বালু স্থানীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আনিছুর ইন্সট্রাকশন ইজারা নিয়ে খনন করা বালু নিয়ে যায়।

মুল সীমানার বালু নিয়ে যাওয়া শেষে কয়েকদিন পরে ওই বালুর তৎসংলগ্ন চার ফসলি জমির মাটি কাটা শুরু করে অভিযুক্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। স্থানীয়রা বার বার বাধা প্রদান করার পরেও মাটি কেটে বালু উত্তলন অব্যাহত রাখলে কোন উপায় না পেয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) নীলফামারী বরাবর অভিযোগ পত্র প্রদান করে স্থানীয়রা। তবে অভিযোগ প্রদান করেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি পানি উন্নয়ন বোর্ড।

সাজ্জাদ আলী বলেন- যখন নদী খনন করে আমরা আমাদের ফসলি জমি ভাঙ্গন থেকে বাচানোর জন্য আলু সহ জমি ছেড়ে দেই। কিন্তু এখন ক্ষমতার জোরে অবেধ্য ভাবে তারা আমাদের আবাদি জমিনকেটে নিয়ে যাচ্ছে। এমনিতে নদীর ভাঙন তার উপর এই অত্যাচার। আমরা পথে বসে যাচ্ছি। ষাটোর্ধ আঞ্জুয়ারা বেগম বলেন, বাবা আমার ছেলে মেয়ে নাই। স্বামীও চলতে পায়না। ওই টুকু জমি আবাদ করে চলি সেটুকুও নিয়ে গেলো আমার। হাতে পায়ে ধরছি তাও কেউ দয়া করছেনা। এখন ভিক্ষা ছাড়া কোন উপায় নাই।

এ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আনিছুর কন্সট্রাকশনের মালিক আনিছুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

এবিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সৈয়দপুর ডিভিশিনের নির্বাহী প্রকোশলী কৃষ্ণ কমল রায় বলেন- গভীর করে খনন করা বা ফসলি জমি কাটার কোন অনুমোদন নেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের। তবে অভিযোগ সত্যি হলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের জামানত বাতিল করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

১১

অনলাইন ভিত্তিক 71sangbad24.com গণমাধ্যমটি

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশনে নিবন্ধিত, (আই ডি নং-364)

বাংলাদেশ তথ্য মন্ত্রনালয়ে জাতীয় নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন।

আগ্রহীগণ সিভি পাঠাতে -মেইল করুনঃ info71sangbad24.com@gmail.com

©2019 copy right. All rights reserved 71sangbad24.com Desing & Developed By Hostitbd.Com